শুক্রবার, ১৯ জুলাই ২০২৪, ০৯:৫৬ অপরাহ্ন
শিরোনামঃ
নকলায় বৈষম্যমূলক কোটা সংস্কার দাবিতে ও শিক্ষার্থীর ওপর বর্বর হামলার প্রতিবাদে মানববন্ধন নকলায় উন্নয়ন সহায়তা কর্মসূচির টিউবওয়েল বিতরণ মুক্তিযুদ্ধের চেতনাবিরোধী শ্লোগানের প্রতিবাদে নকলায় মুক্তিযোদ্ধাদের মানববন্ধন এবার শেরপুরকে ঘিরে তৈরি হচ্ছে ইত্যাদি অনুষ্ঠান : সকল কাজ প্রায় শেষ বিভাগীয় কমিশনার হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণের বর্ষপূর্তি উপলক্ষে সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময় নকলায় “মাদককে না বলুন” কর্মসূচি বাস্তবায়নে শপথ গ্রহণ নকলায় জঙ্গিবাদ ও মাদকাসক্তি প্রতিরোধে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান নকলায় শিশু ও নারী নির্যাতন বিরোধী সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান নকলায় যুবদের হুইসেলব্লোয়ার হিসেবে অন্তর্ভূক্তিকরণ সভা নকলার ইউএনও শুদ্ধাচার পুরস্কার পাওয়ায় যুবফোরাম কর্তৃক সম্মাননা স্মারক প্রদান

এবার গানের লেখক নারায়নগঞ্জের আলী হাসানকে শেরপুর থেকে লিগ্যাল নোটিশ

নিজস্ব প্রতিনিধি:
  • প্রকাশের সময় | বৃহস্পতিবার, ২০ জুন, ২০২৪
  • ৩৭ বার পঠিত

এবার গানের মাধ্যমে আদালত অবমাননা হয়েছে এমন দাবিতে গানের লেখক নারায়নগঞ্জের আলী হাসানকে লিগ্যাল নোটিশ পাঠিয়েছেন শেরপুর জেলা জজ আদালতের সহকারী পাবলিক প্রসিকিউটর (এপিপি) নকলা উপজেলার এ্যাডভোকেট ফাহিম হাসনাঈন। বুধবার (১৯ জুন) তিনি লিগ্যাল নোটিশটি পাঠিয়েছেন।

নোটিশ মোতাবেক, ঈদুল আযহায় মুক্তি পাওয়া ‘নানা-নাতি’ গানে ‘বর্তমানের কোর্টে বিচার চলে নোটে’ এমন বাক্যে আদালত অবমাননা হয়েছে উল্লেখ করে গানটির লেখক র‌্যাপার আলী হাসানকে লিগ্যাল নোটিশ পাঠানো হয়। গানটি সুর করেছেন আলী হাসান ও মারজুক রাসেল। ‘নানা-নাতি’ গানটি ১৬ জুন (রবিবার) একটি ইউটিউব চ্যানেলে প্রচার করা হয়। নোটিশ দাতা এ্যাডভোকেট ফাহিম হাসনাঈন বৃহস্পতিবার (২০ জুন) বিকেলে এ বিষয়টি সাংবাদিকদের নিশ্চিত করেছেন।

নোটিশে আগামী ১৫ দিনের মধ্যে গানের মধ্যে ‘বর্তমানের কোর্টে বিচার চলে নোটে’ লাইনটি বাদ দেওয়াসহ অনলাইনে লাইভে এসে জনসাধারণের কাছে ক্ষমা চাইতে বলা হয়েছে। অন্যথায় তাঁর বিরুদ্ধে আদালতে মামলা করার কথা বলা হয়েছে।

লিগ্যাল নোটিশটির মূল অংশ হুবহু তোলে ধরা হলো- ‘আপনি লিগ্যাল নোটিশ গ্রহীতাকে এই মর্মে জানাইতেছি যে, আপনার গাওয়া নানা নাতি নামে একটি গান বিগত ১৬/০৬/২০২৪ ইং তারিখে ইউটিউব চ্যানেলে প্রকাশ পায়। গানটির কথা আপনার এবং গানটির সুর করেছেন আপনি এবং মারজুক রাসেল। উক্ত গানটি শুরু হওয়ার ১ মিনিট ১৮ সেকেন্ড পর আপনি গানটিতে একটি লাইন ব্যবহার করেন। লাইনটি হলো ‘বর্তমানেয় কোর্টে বিচার চলে নোটে’। উক্ত লাইনটি আদালত অবমাননা করার শামিল। উক্ত লাইনের ফলে দেশের বিচার ব্যবস্থা এবং আদালতের প্রতি সাধারণ মানুষের ভুল ধারণা বা ভ্রান্ত ধারণা উদ্ভব হইয়াছে। যার ফলে মানুষ আইনের প্রতি আস্থা হারানোর সম্ভাবনা রয়েছে। আপনি নোটিশ পাওয়ার সাথে সাথে আপনার গানের উক্ত লাইনটি বাদ পূর্বক অনলাইন লাইভে এসে সাধারণ জনগনের কাছে ক্ষমা চাবেন এবং ভুল স্বীকার করবেন।

এমতাবস্থায় নোটিশ প্রদানের ১৫ (পনের) দিনের মধ্যে আপনি নোটিশ গ্রহিতা যদি উক্ত গানের লাইনটি বাদ না দেন এবং অনলাইন লাইভে এসে সাধারণ জনগনের কাছে ক্ষমা না চেয়ে দুঃখ প্রকাশ না করেন তাহলে আপনি নোটিশ গ্রহিতার বিরুদ্ধে আইন অনুযায়ী উপযুক্ত আদালতে মোকদ্দমা রুজু করিতে বাধ্য হব। পরবর্তী প্রয়োজনীয়ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য অত্র নোটিশের এক কপি আমার সেরেস্তায় সংরক্ষিত রহিল’।

নিউজটি শেয়ার করুনঃ

এই জাতীয় আরো সংবাদ
©২০২০ সর্বস্তত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | সমকালীন বাংলা
Develop By : BDiTZone.com
themesba-lates1749691102
error: ভাই, খবর কপি না করে, নিজে লিখতে অভ্যাস করুন।