সোমবার, ২২ জুলাই ২০২৪, ১০:৪৮ অপরাহ্ন
শিরোনামঃ
নকলায় বৈষম্যমূলক কোটা সংস্কার দাবিতে ও শিক্ষার্থীর ওপর বর্বর হামলার প্রতিবাদে মানববন্ধন নকলায় উন্নয়ন সহায়তা কর্মসূচির টিউবওয়েল বিতরণ মুক্তিযুদ্ধের চেতনাবিরোধী শ্লোগানের প্রতিবাদে নকলায় মুক্তিযোদ্ধাদের মানববন্ধন এবার শেরপুরকে ঘিরে তৈরি হচ্ছে ইত্যাদি অনুষ্ঠান : সকল কাজ প্রায় শেষ বিভাগীয় কমিশনার হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণের বর্ষপূর্তি উপলক্ষে সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময় নকলায় “মাদককে না বলুন” কর্মসূচি বাস্তবায়নে শপথ গ্রহণ নকলায় জঙ্গিবাদ ও মাদকাসক্তি প্রতিরোধে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান নকলায় শিশু ও নারী নির্যাতন বিরোধী সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান নকলায় যুবদের হুইসেলব্লোয়ার হিসেবে অন্তর্ভূক্তিকরণ সভা নকলার ইউএনও শুদ্ধাচার পুরস্কার পাওয়ায় যুবফোরাম কর্তৃক সম্মাননা স্মারক প্রদান

নকলার ১১৪টি গোরস্থান-শ্বশান’র জন্য মতিয়া চৌধুরী’র ঐচ্ছিক তহবিলের অনুদান প্রদান

নকলা (শেরপুর) প্রতিনিধি:
  • প্রকাশের সময় | রবিবার, ১২ নভেম্বর, ২০২৩
  • ১৬৬ বার পঠিত

শেরপুরের নকলা উপজেলার ১০৪টি গোরস্থানে মাটি ভরাটের জন্য ও ১০টি শ্বশান ঘাটের উন্নয়নের জন্য মহান জাতীয় সংসদের উপনেতা, কৃষি মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি সাবেক কৃষি মন্ত্রী বেগম মতিয়া চৌধুরী এম.পি-এঁর ঐচ্ছিক তহবিল হতে মোট ৫ লাখ ৭০ হাজার টাকা আর্থিক অনুদান প্রদান করা হয়েছে।

এ উপলক্ষে রবিবার (১২ নভেম্বর) বিকেলে উপজেলার মুজিব শতবর্ষ মুক্তমঞ্চ মাঠে উপজেলা প্রশাসন আর্থিক অনুদান প্রদান অনুষ্ঠানের আয়োজন করে। এতে সংসদের উপনেতা বেগম মতিয়া চৌধুরী এম.পি প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে নিজ হাতে গোরস্থান ও শ্বশান ঘাট পরিচালনা পরিষদের সভাপতি বা সাধারণ সম্পাদকগনের হাতে অনুদানের চেক তুলেদেন।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সাদিয়া উম্মুল বানিন-এঁর সভাপতিত্বে ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ছামিউল হক মুক্তার সঞ্চালনায় অনুদানের চেক বিতরণ অনুষ্ঠানে জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান হুমায়ূন কবীর রুমান, নকলা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান শাহ মোহাম্মদ বোরহান উদ্দিন, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আম্বিয়া খাতুন, সাধারণ সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা শফিকুল ইসলাম জিন্নাহ, সহ-সভাপতি বাবু ইন্দ্রজিৎ ধর সুভাষ, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক খলিলুর রহমান ও আনিসুর রহমান সুজা, কৃষি ও সমবায় বিষয়ক সম্পাদক ফরিদুল আলম আজাদ আলমগীর,

দপ্তর সম্পাদক রফিকুল ইসলাম সুহেল, ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক মাওলানা মো. শাহিদুল ইসলাম, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক গোলাম হাফিজ সোহেল, সাংগঠনিক সম্পাদক রেজাউল হক হীরা, আব্দুর রশিদ সরকার, সহ-দপ্তর সম্পাদক এফএম কামরুল আলম রঞ্জুসহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দ, পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি ও উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান এ.কে.এম মাহবুবুল আলম সোহাগ, সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট শিহাবুল আরিফ,  নকলা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুল কাদের মিয়াসহ আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী সংস্থার সদস্যবৃন্দ, নকলা প্রেস ক্লাবের সভাপতি ও বঙ্গবন্ধু শিক্ষা-গবেষণা পরিষদ নকলা উপজেলা শাাখার সাংগঠনিক সম্পাদক মো. মোশারফ হোসাইন, সহ-সভাপতি খন্দকার জসিম উদ্দিন মিন্টু, সাংগঠনিক সম্পাদক ফজলে রাব্বী রাজন ও মো. নুর হোসেন, দপ্তর সম্পাদক সেলিম রেজা, কোষাধ্যক্ষ আব্দুল্লাহ আল-আমিন, তথ্য প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক আসাদুজ্জামান সৌরভ ও সদস্য শীমানুর রহমান সুখন ও রেজাউল হাসান সাফিতসহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দ, উপজেলা ছাত্রলীগের আহবায়ক আবু হামযা কনকসহ উপজেলা, ইউনিয়ন ও ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ, যুব লীগ, ছাত্র লীগ, শ্রমিক লীগ, কৃষক লীগ ও অঙ্গসহযোগী সংগঠনের নেতা-কর্মী, বিভিন্ন ইউপির চেয়ারম্যানসহ বিভিন্ন স্তরের জনপ্রতিনিধিগন, উপজেলার বিভিন্ন দপ্তরে কর্মরত কর্মকর্তা-কর্মচারীগন, উপজেলার তালিকাভূক্ত সকল গোরস্থান ও শ্বশান ঘাটের শ্বশান ঘাট পরিচালনা পরিষদের সভাপতি বা সাধারণ সম্পাদকগন উপস্থিত ছিলেন।

এর আগে রবিবার দুপুর ২টার সময় উপজেলার চরমধুয়া আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে পাঠাকাটা, টালকী, চরঅষ্টধর ও চন্দ্রকোনা ইউনিয়ন সমূহের এবং ৩টার সময় উপজেলার মুজিব শতবর্ষ মুক্তমঞ্চ মাঠে উপজেলার গনপদ্দী, নকলা, উরফা, গৌড়দ্বার, বানেশ্বরদী ইউনিয়ন ও পৌর এলাকার সকল মাধ্যমিক, নিম্ন মাধ্যমিক ও সমমান দাখিল মাদ্রাসার ষষ্ঠ, সপ্তম, অষ্টম, নবম ও দশম শ্রেণীর মেধাক্রমানুসারে প্রথম ১৬ জনের মাঝে টিআর কর্মসূচির দ্বিতীয় কিস্তির আওতায় খাত হতে নগদ এক হাজার টাকা করে আর্থিক প্রণোদনা প্রদান করেন জাতীয় সংসদের উপনেতা, কৃষি মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির সভাপতি সাবেক কৃষি মন্ত্রী বেগম মতিয়া চৌধুরী এম.পি। এছাড়া উপজেলার কৃষক-কৃষাণীদের মাঝে বিনামূল্যে বীজ বিতরণ কার্যক্রম উদ্বোধন করেন তিনি।

নিউজটি শেয়ার করুনঃ

এই জাতীয় আরো সংবাদ
©২০২০ সর্বস্তত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | সমকালীন বাংলা
Develop By : BDiTZone.com
themesba-lates1749691102
error: ভাই, খবর কপি না করে, নিজে লিখতে অভ্যাস করুন।