সোমবার, ২২ জুলাই ২০২৪, ১১:৫৭ অপরাহ্ন
শিরোনামঃ
নকলায় বৈষম্যমূলক কোটা সংস্কার দাবিতে ও শিক্ষার্থীর ওপর বর্বর হামলার প্রতিবাদে মানববন্ধন নকলায় উন্নয়ন সহায়তা কর্মসূচির টিউবওয়েল বিতরণ মুক্তিযুদ্ধের চেতনাবিরোধী শ্লোগানের প্রতিবাদে নকলায় মুক্তিযোদ্ধাদের মানববন্ধন এবার শেরপুরকে ঘিরে তৈরি হচ্ছে ইত্যাদি অনুষ্ঠান : সকল কাজ প্রায় শেষ বিভাগীয় কমিশনার হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণের বর্ষপূর্তি উপলক্ষে সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময় নকলায় “মাদককে না বলুন” কর্মসূচি বাস্তবায়নে শপথ গ্রহণ নকলায় জঙ্গিবাদ ও মাদকাসক্তি প্রতিরোধে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান নকলায় শিশু ও নারী নির্যাতন বিরোধী সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান নকলায় যুবদের হুইসেলব্লোয়ার হিসেবে অন্তর্ভূক্তিকরণ সভা নকলার ইউএনও শুদ্ধাচার পুরস্কার পাওয়ায় যুবফোরাম কর্তৃক সম্মাননা স্মারক প্রদান

শেরপুরে রাজনৈতিক দলসমূহের মধ্যে সংলাপ ও সমঝোতার আহবানে সুজন’র মানববন্ধন

রিপোর্টারঃ
  • প্রকাশের সময় | শনিবার, ৫ আগস্ট, ২০২৩
  • ১৫৫ বার পঠিত

আগন জাতীয় নির্বাচনকে কেন্দ্রকরে দেশে বিরাজমান রাজনৈতিক সংকট নিরসনে রাজনৈতিক দলসমূহের মধ্যে সংলাপ ও সমঝোতার আহবানে শেরপুরে সুশাসনের জন্য নাগরিক (সুজন) এর উদ্যোগে মানববন্ধন করা হয়েছে।

শনিবার (৫ আগস্ট) দুপুরের দিকে জেলার কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারের সামনে শেরপুর সুজন-এর সভাপতি সমাজ সেবী রাজিয়া সামাদ ডালিয়ার সভাপতিত্বে¡ এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। মানববন্ধনে শেরপুর সুজন-এর সদস্য সচিব শওকত হোসেন, সমাজসেবক তাহমিনা জলি ও শামীম আহমেদসহ অনেকে বক্তব্য রাখেন।

শেরপুর সুজন-এর সভাপতি সমাজ সেবীক রাজিয়া সামাদ ডালিয়া তার বক্তব্যে বলেন- আজ রাজনীতিবিদদের মতদ্বৈততার জন্য জাতি মহা সংকটে উপনীত হচ্ছে। আমরা যারা সুস্থ চিন্তার মানুষ আমাদের দাবি আমরা সুষ্ঠু নির্বাচন চাই। ভোটারগণ নির্বিঘ্নে ভোট কেন্দ্রে যাবে এবং ভোট দান করবে এটা সর্বসাধারনের দাবী। একটা স্বাধীন দেশে পাঁচ বৎসর পর পর নির্বাচন হবে, এটা যেমন সত্য তেমনি একটি নিরপেক্ষ স্বাধীন নির্বাচন কমিশনের মাধ্যমে মানুষ স্বতঃস্ফূর্ত ভাবে ভোটাধিকার প্রয়োগ করবে এটাও গণতান্ত্রিক সত্য। তিনি আরো বলেন- রাজনৈতিক দলের মধ্যে অজ্ঞাত কারনে কোন সমঝোতা নেই। ফলে যখন একে অপরের মুখোমুখি দাঁড়িয়ে যায়, তখন গণমানুষ শংকিত ও অসহায় বোধ করেন। প্রত্যেক নির্বাচনের সময়ই গণমানুষ এই অসহায় পরিস্থিতির সম্মুখীন হয়; যা কোন গণতান্ত্রিক রাষ্ট্রের জন্য শুভ সংকেত নয়। নির্বাচন ঘনিয়ে এলে এবং নির্বাচন পরবর্তী সময় সমাজের প্রান্তিক জনগোষ্ঠী তথা আদিবাসী ও নিরীহ জনমানুষের উপর নির্যাতন নিপীড়ন অগ্নিসংযোগ সম্পদ লুটপাটের ঘটনা ঘটে! এই পরিস্থিতির অবসান চায় গণমানুষ। মহান মুক্তিযুদ্ধের মধ্যদিয়ে অর্জিত স্বাধীন বাংলাদেশ ও ত্রিশ লক্ষ শহীদের রক্তে অর্জিত সংবিধানে প্রত্যেক নাগরিকের শান্তিপূর্ণ ও সহঅবস্থান নিশ্চিত করতে রাষ্ট্র বদ্ধপরিকর। সবাই আজ এর বাস্তবায়ন চান। এখন আমাদের এই মতবাদ প্রচার ও নাগরিকের অধিকার সংরক্ষণ করতে আন্দোলন গড়ে তুলতে হবে। সুশাসনের জন্য নাগরিক এর এই সত্যটি প্রতিষ্ঠিত করতে আন্দোলন করে চলেছে। নির্বাচনের সুস্থ পরিবেশ গড়ে তুলতে আন্দোলন অব্যহত রাখার আহবান জানান তিনি। অন্যান্য বক্তারা রাজিয়া সামাদ ডালিয়া-এঁর বক্তব্যকে পূর্ণসমর্থন জানিয়ে নিজ নিজ মতো করে বক্তব্যদেন।

নিউজটি শেয়ার করুনঃ

এই জাতীয় আরো সংবাদ
©২০২০ সর্বস্তত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | সমকালীন বাংলা
Develop By : BDiTZone.com
themesba-lates1749691102
error: ভাই, খবর কপি না করে, নিজে লিখতে অভ্যাস করুন।