মঙ্গলবার, ২৫ জুন ২০২৪, ০৩:৩০ অপরাহ্ন
শিরোনামঃ
সেনাবাহিনী প্রধানের দায়িত্ব নিলেন জেনারেল ওয়াকার-উজ-জামান : নকলায় আনন্দ মিছিল আ’লীগের ৭৫তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে নকলায় বিভিন্ন কর্মসূচি বাস্তবায়ন হংকংয়ে বাংলাদেশি নারী কর্মীদের ঈদ পুনর্মিলনীতে বৈধপথে রেমিট্যান্স প্রেরণ ও প্রবাস পেনশন স্কীম বিষয়ক আলোচনা আ’লীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষ্যে নকলায় ফ্রি চক্ষুসেবা ও ছানি রোগী বাছাই নকলার বানেশ্বরদী ইউপি কার্যালয় পরিদর্শন নকলায় বিদ্যুৎস্পৃষ্টে নিহত ১ নকলা প্রেসক্লাব পরিবারের ঈদ পুনর্মিলনী অনুষ্ঠানে সাংগঠনিক আলোচনা নকলা উপজেলা পরিষদের নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান ও ভাইস চেয়ারম্যানদের দায়িত্ব গ্রহন এবার গানের লেখক নারায়নগঞ্জের আলী হাসানকে শেরপুর থেকে লিগ্যাল নোটিশ রাজিব হাসানের লেখা ‘কুসংস্কার’

দিন বদলের সরকার মানেই আওয়ামী লীগ সরকার: মতিয়া চৌধুরী

রিপোর্টারঃ
  • প্রকাশের সময় | রবিবার, ২৫ জুন, ২০২৩
  • ৩৩৯ বার পঠিত

মহান জাতীয় সংসদের উপনেতা, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ও তিনবারের সফল সাবেক কৃষি মন্ত্রী বেগম মতিয়া চৌধুরী এম.পি বলেছেন, ‘দিন বদলের সরকার মানেই আওয়ামী লীগ সরকার। বঙ্গবন্ধুর কন্যা আওয়ামী লীগ সরকারের প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার-এঁর আমলে শিক্ষা বর্ষের প্রথম দিন শিক্ষার্থীদের হাতে বিনামূল্যে নতুন বই তুলে দেওয়ার রেকর্ড আজ বিশ্বকে তাক লাগিয়ে দিয়েছে। ঘরে ঘরে বিদ্যুৎ পৌঁছে দেওয়া হয়েছে এই সরকারের আমলেই। আজ গ্রাম শহরের মধ্যে অবকাঠামোগত কিছু পার্থক্য থাকলেও; বিদ্যুতায়ন ও শিক্ষার গুণগত মান উন্নয়নসহ সার্বিক উন্নয়ন বিবেচনায় তেমন কোন পার্থক্য নেই।

রবিবার (২৫ জুন) দুপুরের দিকে শেরপুরের নকলা উপজেলা পরিষদ চত্বরের মুজিবশতবর্ষ মঞ্চে মেধাবী শিক্ষার্থীর মাঝে সমহারে এক হাজার টাকা করে আর্থিক প্রনোদনা বিতরণ অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

সংসদ উপনেতা মতিয়া চৌধুরী আরো বলেন, শিক্ষিত পরিবারের অভিভাবকসহ পরিবারের সবার চিন্তা চেতনা থাকে শিক্ষার উন্নয়ন নিয়ে। শেখ হাসিনার পরিবার সুশিক্ষিত হওয়ায়, তাঁদের চিন্তা চেতনাও শিক্ষাকে ঘিরেই। প্রধানমন্ত্রী ছেলে সজিব ওয়াজেদ জয় আইটি বিশেষজ্ঞ, আইটি বিষয়ে সজিব ওয়াজেদ জয় বিশ্বের মধ্যে একজন। তাছাড়া টিউলিপ একজন অটিজম বিশেষজ্ঞ। তাদের মতো শিক্ষিত সন্তানের পরিবারের হাতে দেশ ও জাতি নিরাপদ থাকবে এটাই স্বাভাবিক। আর কিছু কিছু অল্প শিক্ষিত পরিবারের দূর্নীতিগ্রস্থ সন্তানরা ক্যাসিনোর সাথে জড়িত থেকে লুটপাট করে দেশটাকে শেষ করতে চেয়েছিলো। বাংলার জনগন তা করতে দেয়নি। এখন কেউ জেলে, আবার কেউ দেশ ছেড়ে বিদেশে বসে বড় বড় গালগল্প করা ছাড়া আর কিছুই তাদের করার নেই বলে তিনি মন্তব্য করেন।

এময় উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান শাহ মো. বোরহান উদ্দিন, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সাদিয়া উম্মুল বানিন, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোছা. আম্বিয়া খাতুন, সাধারণ সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা শফিকুল ইসলাম জিন্নাহ, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও পৌরসভার মেয়র হাফিজুর রহমান লিটন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সাইদুর রহমান, সহকারি কমিশনার (ভূমি) শিহাবুল আরিফ, থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোহাম্মদ রিয়াদ মাহমুদ, উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক খলিলুর রহমান ও আনিসুর রহমান সুজা, দপ্তর সম্পাদক রফিকুল ইসলাম সুহেল, ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক মাওলানা শহিদুল ইসলাম, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক গোলাম হাফিজ সোহেল, শিক্ষা ও মানবসম্পদ সম্পাদক মুনসুর আলী, সাংগঠনিক সম্পাদক রেজাউল হক হীরা, ছামিউল হক মুক্তা ও আব্দুর রশিদ সরকার, স্বাস্থ্য ও জনসংখ্যা বিষয়ক সম্পাদক মনির হোসেনসহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দ, শ্রীবরদী পৌরসভার মেয়র মোহাম্মদ আলী লাল, উপজেলা পরিষদের মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান ফরিদা ইয়াসমিন, সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা আবুল মনসুর ও বেলায়েত হোসেন আকন্দ, উপজেলা যুবলীগের যুগ্ম আহবায়ক এফ.এম কামরুল আলম রঞ্জু, নকলা প্রেস ক্লাবের সভাপতি ও বঙ্গবন্ধু শিক্ষা-গবেষণা পরিষদ নকলা উপজেলা শাখার সাংগঠনিক সম্পাদক মোশারফ হোসাইন, উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক ও প্রেসক্লাবের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক নাসির উদ্দিন, প্রেসক্লাবের সাংগঠনিক সম্পাদক ফজলে রাব্বী রাজনসহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দ; উপজেলা ছাত্রলীগের আহবায়ক আবু হামযা কনক, সাবেক সভাপতি জিকরুল হাসান পিকুল ও সাধারণ সম্পাদক মুজিবুল আজাদ ডেবিডসহ আওয়ামী লীগ ও অঙ্গসহযোগী সংগঠনের নেতা-কর্মী, বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক, শিক্ষার্থী ও অভিভাবকগন উপস্থিত ছিলেন।

জানা গেছে, এদিন জাতীয় সংসদের উপনেতা, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য, সাবেক কৃষি মন্ত্রী বেগম মতিয়া চৌধুরী এম.পি নকলা উপজেলার সকল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও ইবতেদায়ী মাদরাসার ৩৭ জন করে এবং মাধ্যমিক স্তরের সকল স্কুল ও মাদ্রাসার ৭০ জন করে শিক্ষার্থীর মাঝে সমহারে প্রণোদনা হিসেবে নগদ অর্থ প্রদান করেন। এর মধ্যে- তৃতীয় শ্রেণির সেরা ২০ জন, চতুর্থ শ্রেণির সেরা ৫ জন ও পঞ্চম শ্রেণির সেরা ১২ জন এবং মাধ্যমিক স্তরের সকল স্কুল ও মাদ্রাসার ষষ্ঠ, সপ্তম ও নবম শ্রেণির ২০ জন করে ও অষ্টম শ্রেণির সেরা ১০ জন করে মোট ৮,৮৫৮ জন শিক্ষার্থীর মাঝে ১,০০০ টাকা করে মোট ৮৮ লাখ ৫৮ হাজার টাকা প্রদান করা হয়।

নিউজটি শেয়ার করুনঃ

এই জাতীয় আরো সংবাদ
©২০২০ সর্বস্তত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | সমকালীন বাংলা
Develop By : BDiTZone.com
themesba-lates1749691102
error: ভাই, খবর কপি না করে, নিজে লিখতে অভ্যাস করুন।