বুধবার, ২২ মে ২০২৪, ১১:২৩ অপরাহ্ন
শিরোনামঃ
শেরপুরে ডিএসএ’র দাবা প্রতিযোগিতা উদ্বোধন ছাত্রলীগ থেকে উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান হলেন তরুণ সমাজসেবক কনক ঐতিহাসিক ভোট পেয়ে নকলা উপজেলা পরিষদের নতুন মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান হলেন লাকী নকলা উপজেলা পরিষদের নতুন চেয়ারম্যান মাহবুবুল আলম সোহাগ নালিতাবাড়ী উপজেলা পরিষদে নির্বাচিত হলেন যাঁরা মেঘলা দিনে নকলা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান পদে সোহাগ, ভাইস চেয়ারম্যান পদে কনক ও লাকী নির্বাচিত নকলার ৭৯ কেন্দ্রে নির্বাচনি সরঞ্জাম পৌঁছেছে ব্যালট পেপার যাবে সকালে নকলায় নির্বাচনি প্রচারনা বন্ধ, নিয়ন্ত্রিত যানবাহন ২১ মে সাধারণ ছুটি ঘোষণা নকলাকে স্মার্ট উপজেলা হিসেবে গড়ে তুলতে একগুচ্ছ পরিকল্পনা ঘোষণা দিলেন চেয়ারম্যান প্রার্থী সোহাগ

প্রাথমিক বৃত্তির সংশোধিত ফলাফলে নকলার ১৬০ জনের মধ্যে বৃত্তিবঞ্চিত হল ১১০!

এম.এম হোসাইন:
  • প্রকাশের সময় | বৃহস্পতিবার, ২ মার্চ, ২০২৩
  • ৭৮ বার পঠিত
প্রাথমিক বৃত্তি পরীক্ষা ২০২২

শেরপুর নকলায় ২০২২ সালের প্রাথমিক বৃত্তি পরীক্ষার সংশোধিত ফলাফলে মোট ১৬০জন বৃত্তিপ্রাপ্ত শিশু শিক্ষার্থীর মধ্যে ১১০ বৃত্তিবঞ্চিত হয়। এতে বৃত্তিবঞ্চিতদের মনভেঙ্গে যেনো তছনছ হয়েগেছে! বন্ধু-বান্ধবের টিপ্পনী ও লোকলজ্জার কারনে অনেকে ঘরে বসেই কাটাচ্ছে সারাদিন।

প্রথম প্রকাশিত ফলাফলে বৃত্তিপ্রাপ্তদের মধ্যে যে বা যারা সংশোধিত ফলাফলে বৃত্তিবঞ্চিত হয় তাদের কোন কোন শিক্ষার্থী বন্ধু-বান্ধবের টিপ্পনী ও লোকলজ্জার ভয়ে ঘর থেকে বেড় হতে চাচ্ছেনা বলে পরিবার সূত্রে জানা গেছে।

প্রথম প্রকাশিত ও সংশোধিত আকারে প্রকাশিত বৃত্তি পরীক্ষার ফলাফলের সূত্র মতে, প্রথম প্রকাশিত ফলাফলে নকলা উপজেলা থেকে ট্যালেন্টপুলে বা মেধাবৃত্তি পায় ৫১ জন (ছেলে ২৫ জন ও মেয়ে ২৬ জন) এবং সাধারন বৃত্তি প্রাপ্ত হয় ১০৯ জন (ছেলে ৫৩ জন ও মেয়ে ৫৬ জন)। সংশোধিত ফলাফলে বৃত্তি প্রাপ্তের সংখ্যা অপরিবর্তিত থাকলেও বৃত্তিবঞ্চিত হয়েছে ১১০ জন। বৃত্তিবঞ্চিতদের মধ্যে মেধাবৃত্তি প্রাপ্ত ছিলো ৩৫ জন ও সাধারন বৃত্তি প্রাপ্ত ছিলো ৭৫ জন।

তাছাড়া সংশোধিত ফলাফলে মেধাবৃত্তিতে ছেলে ও মেয়ের সংখ্যা অপরিবতর্তিত থাকলেও মেধাবৃত্তি প্রাপ্ত ১০জন সাধারন বৃত্তি পায় ও ৬ জনের ফলাফল অপরিবর্তিত থাকে; আর বৃত্তিবঞ্চিত হয় ৩৫ জন। সাধারন বৃত্তির সংশোধিত ফলাফলে মেয়ের সংখ্যা ১ জন বৃদ্ধিপায়, তাতে ছেলের সংখ্যা ১ জন কমে। ফলে ৫৭ জন মেয়ে ও ৫২ জন ছেলে সাধারন বৃত্তি প্রাপ্ত হয়। তাছাড়া সাধারন বৃত্তি প্রাপ্ত ৯জন মেধাবৃত্তি প্রাপ্ত পায় ও ২৫ জনের ফলাফল অপরিবর্তিত থাকে; আর বৃত্তিবঞ্চিত হয় ৭৫ জন।

উল্লেখ্য, ২৮ ফেব্রুয়ারি (মঙ্গলবার) প্রাথমিক বৃত্তি পরীক্ষার ফল ঘোষণার ৪ ঘণ্টার মাথায় ‘যান্ত্রিক ও কারিগরি ত্রুটির কারণে’ তা স্থগিত করা হয়। পরের দিন বুধবার (১ মার্চ) সংশোধিত ফলাফল প্রকাশ করা হয়। দেশের মোট ৮২ হাজার ৩৮৩ জন শিক্ষার্থী বৃত্তি পেয়েছে। এর মধ্যে মেধা বৃত্তি পেয়েছে ৩৩ হাজার ও সাধারণ কোটায় বৃত্তি পেয়েছে ৪৯ হাজার ৩৮৩ জন শিক্ষার্থী। ট্যালেন্টপুল বৃত্তিপ্রাপ্তরা মাসে ৩০০ টাকা ও সাধারণ গ্রেডে বৃত্তিপ্রাপ্তরা মাসে ২২৫ টাকা করে বৃত্তি পাবে। তাছাড়া সকল বৃত্তিপ্রাপ্তদের প্রতি বছর ২২৫ টাকা করে এককালীন দেওয়া হবে বলে সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে।

গত ডিসেম্বর মাসে প্রাথমিক বৃত্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়েছিল। এতে প্রতিটি বিদ্যালয়ের পঞ্চম শ্রেণিতে পড়ুয়া ২০ শতাংশ শিক্ষার্থী বৃত্তি পরীক্ষায় অংশ নেওয়ার সুযোগ পায়। তাতে সারা দেশের ৪ লাখ ৮৩ হাজার ৭৫৯ জন শিক্ষার্থী এই মেধা বৃত্তি পরীক্ষায় অংশ গ্রহন করে। বাংলা, ইংরেজি, গণিত ও বিজ্ঞান এই ৪টি বিষয়ের প্রতিটিতে ২৫ নম্বর করে মোট ১০০ নম্বরের মধ্যে এই পরীক্ষা নেওয়া হয়, পরীক্ষার সময় ছিল ২ ঘণ্টা।

প্রায় এক যুগ আগে এভাবে আলাদা করে বৃত্তি পরীক্ষা নেওয়া হত। কিন্তু ২০০৯ সালের প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষা (পিইসি) শুরু হওয়ার পর আলাদা বৃত্তি পরীক্ষা বন্ধ হয়ে যায়। প্রাথমিক সমাপনীর ফলাফলের ভিত্তিতেই শিক্ষার্থীদের মেধাবৃত্তি দেওয়া শুরু হয়। কিন্তু করোনার অতিমারীর কারণে ২০২০ ও ২০২১ সালে প্রাথমিক সমাপনী পরীক্ষা হয়নি। ২০২২ সালে সিদ্ধান্ত হয় নতুন শিক্ষাক্রম চালুর। নতুন শিক্ষাক্রমে যেহেতু প্রাথমিক সমাপনী পরীক্ষা নেওয়া হবে না, তাই প্রাথমিকে মেধা বৃত্তির জন্য যোগ্য শিক্ষার্থী বাছাই করতে ২০২২ সালের শেষে আবারও আলাদা ভাবে মেধাবৃত্তি পরীক্ষা নেওয়ার ব্যবস্থা ফিরিয়ে আনা হয়।

নিউজটি শেয়ার করুনঃ

এই জাতীয় আরো সংবাদ
©২০২০ সর্বস্তত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | সমকালীন বাংলা
Develop By : BDiTZone.com
themesba-lates1749691102
error: ভাই, খবর কপি না করে, নিজে লিখতে অভ্যাস করুন।