সোমবার, ১৭ জুন ২০২৪, ০৪:৩৬ পূর্বাহ্ন
শিরোনামঃ
নকলায় ময়মনসিংহ যুবসমাজ কল্যাণ সংস্থার উদ্যোগে ঈদ উপহার বিতরণ কবিতা :: ‘কোরবানির গরুর হাট’ নকলা প্রেসক্লাব’র উদ্যোগে সাংবাদিকদের ঈদ উপহার প্রদান নকলায় ১টি আগাম জামাতসহ ১০২ ময়দানে ঈদের নামাজ অনুষ্ঠিত হবে নকলায় কৃষকের মাঝে সার বীজ বিতরণ কর্মসূচি উদ্বোধন করলেন সংসদ উপনেতা মতিয়া চৌধুরী নকলার ১৭৪টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা পেলো সংসদ উপনেতা মতিয়া চৌধুরী’র ঈদ উপহার নকলায় গাছের সাথে শত্রুতা! সুষ্ঠু বিচার পাওয়া নিয়ে সংশয়ে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবার সংসদ উপনেতা মতিয়া চৌধুরী সংক্ষিপ্ত সফরে নকলায় পৌঁছেছেন নকলা উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে বিজয়ী ৩ প্রার্থীর শপথ গ্রহণ নকলায় ঈদ উপলক্ষে ২১৬৯ পরিবারের মাঝে ভিডব্লিউবি কর্মসূচির চাল বিতরণ

নকলায় বৃষ্টিতে জমা ডোবার পানিতে ডুবে শিশুর মৃত্যু

সিমানুর রহমান সুখন:
  • প্রকাশের সময় | মঙ্গলবার, ১৩ সেপ্টেম্বর, ২০২২
  • ২০১ বার পঠিত

শেরপুরের নকলায় বৃষ্টিতে জমা ডোবার পানিতে ডুবে আফছিয়া নামে দেড় বছর বয়সী এক শিশুর মৃত্যু হয়েছে। মঙ্গলবার (১৩ সেপ্টম্বর) নকলা পৌরসভার জালালপুর এলাকায় এ ঘটনাটি ঘটে। আফছিয়া জালালপুর এলাকার ট্রলি চালক আইয়ুব আলীর তৃতীয় সন্তান।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, মঙ্গলবার সকাল ১০টার দিকে আফছিয়া সবার অজান্তে বাড়ির পাশে বৃষ্টিতে জমা ডোবার পানিতে পড়ে তলিয়ে যায়। খোঁজাখুঁজির এক পর্যায়ে তাকে ডোবার পানিতে ভাসতে দেখে এলাকাবাসী। পরে দ্রুত উদ্ধার করে নকলা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে জরুরি বিভাগে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

নিহতের পরিবার সূত্রে জানা গেছে, আইয়ুব আলীর স্ত্রী তথা নিহত আফছিয়ার মা শেরপুর জেলা শহরের একটি ক্লিনিকে চতুর্থ সন্তান জন্ম দিয়ে ৩ যাবৎ চিকিৎসাধীন আছেন। চতুর্থ সন্তান জন্ম দিয়ে তৃতীয় সন্তান হারানোর শোকে বার বার মূর্ছা যাচ্ছেন নিহত আফছিয়ার মা। আফছিয়ার মৃত্যুতে তার পরিবারসহ পুরো এলাকায় জুড়ে চলছে শোকের মাতম।

স্থানীয় পৌর ওয়ার্ড কাউন্সিলর সবুজ আন্দোলন নকলা উপজেলা শাখার যুগ্ম-সম্পাদক ফরিদ আহমেদ লালন ঘটনার সত্যত্যা নিশ্চিত করেছেন এবং উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. গোলাম মোস্তফা মৃতের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

নিউজটি শেয়ার করুনঃ

এই জাতীয় আরো সংবাদ
©২০২০ সর্বস্তত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | সমকালীন বাংলা
Develop By : BDiTZone.com
themesba-lates1749691102
error: ভাই, খবর কপি না করে, নিজে লিখতে অভ্যাস করুন।