বৃহস্পতিবার, ২৩ মে ২০২৪, ০১:৪৫ পূর্বাহ্ন
শিরোনামঃ
শেরপুরে ডিএসএ’র দাবা প্রতিযোগিতা উদ্বোধন ছাত্রলীগ থেকে উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান হলেন তরুণ সমাজসেবক কনক ঐতিহাসিক ভোট পেয়ে নকলা উপজেলা পরিষদের নতুন মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান হলেন লাকী নকলা উপজেলা পরিষদের নতুন চেয়ারম্যান মাহবুবুল আলম সোহাগ নালিতাবাড়ী উপজেলা পরিষদে নির্বাচিত হলেন যাঁরা মেঘলা দিনে নকলা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান পদে সোহাগ, ভাইস চেয়ারম্যান পদে কনক ও লাকী নির্বাচিত নকলার ৭৯ কেন্দ্রে নির্বাচনি সরঞ্জাম পৌঁছেছে ব্যালট পেপার যাবে সকালে নকলায় নির্বাচনি প্রচারনা বন্ধ, নিয়ন্ত্রিত যানবাহন ২১ মে সাধারণ ছুটি ঘোষণা নকলাকে স্মার্ট উপজেলা হিসেবে গড়ে তুলতে একগুচ্ছ পরিকল্পনা ঘোষণা দিলেন চেয়ারম্যান প্রার্থী সোহাগ

নকলায় ফেইসবুকের কল্যাণে বিপন্নপ্রায় বন্যপ্রাণী বড় বাঘডাশ উদ্ধার

নকলা (শেরপুর) প্রতিনিধি:
  • প্রকাশের সময় | শনিবার, ২ এপ্রিল, ২০২২
  • ২৬৯ বার পঠিত

শেরপুরের নকলায় ফেইসবুকের কল্যাণে উপজেলার নকলা ইউনিয়নের দক্ষিন নকলা গ্রাম থেকে জেলা বন্যপ্রাণী ব্যস্থাপনা ও প্রকৃতি সংরক্ষণ বিভাগের লোকজন বিপন্নপ্রায় একটি বড় বাঘডাশ উদ্ধার করেছেন। শনিবার (২ এপ্রিল) বিকেল পৌণে ৪টার দিকে এ বাঘডাশটি উদ্ধার করা হয়।

সরেজমিনে জানা গেছে, উপজেলার দক্ষিন নকলা গ্রামের মৃত সুরুজ্জামানের ছেলে ফিরুজ মিয়ার বাড়িতে শুক্রবার মাঝ রাতে খাবারের সন্ধানে এ বাঘডাশটি প্রবেশ করে। টের পেয়ে এলাকাবাসীর সহায়তায় বাঘডাশটি আটক করে শিকল বন্ধী করে গাছের সাথে বেধে রাখা হয়।

পরে শনিবার দুপুরের দিকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইসবুকে শিকলবন্ধী বিপন্নপ্রায় বড় বাঘডাশটির ছবিসহ অনেকে তাদের ফেইসবুক ওয়ালে পোষ্ট করেন। বিষয়টি মুহুর্তের মধ্যে সাংবাদিক ও সুশীলজনের নজরে আসে।

পরে সাংবাদিকগন ও সুশীলজনসহ অনেকে বিভিন্ন মাধ্যমে প্রশাসনসহ বন্যপ্রাণী ব্যস্থাপনা ও প্রকৃতি সংরক্ষণ বিভাগের দৃষ্টি আকর্ষণ করলে বনবিভাগের রেঞ্জ কর্মকর্তা মো. মুঞ্জুরুল আলম জেলা বন্যপ্রাণী ব্যস্থাপনা ও প্রকৃতি সংরক্ষণ বিভাগের লোকজনকে সঙ্গে নিয়ে ঘটনাস্থল থেকে বিলুপ্তপ্রায় প্রাণিটিকে উৎসুক জনতার হাত থেকে বিকেলে রক্ষা করে তাদের হেফাজতে নেন।

বনবিভাগের রেঞ্জ কর্মকর্তা মো. মুঞ্জুরুল আলম জানান, তারা বিষয়টি জেনে দ্রুত সময়ের মধ্যে ঘটনাস্থল থেকে বন্যপ্রাণীটি উদ্ধার করেন। উদ্ধারকৃত প্রাণীটির নাম বড় বাঘডাশ। তিনি বলেন, এরা খাদ্য শৃঙ্খলের গুরুত্বপূর্ণ অংশ এবং ফসলের ক্ষতিকারক পোকা-মাকড় ও ছোট ছোট প্রাণী খেয়ে জীবন ধারন করে। এছাড়া এ প্রাণীটি মানুষের তেমন কোনো ক্ষতি করে না বলে তিনি জানান। ২০১২ সালের বন্যপ্রাণী (সংরক্ষণ ও নিরাপত্তা) আইনের রক্ষিত বন্যপ্রাণীর তালিকার তফসিল-১ অনুযায়ী এ প্রজাতিটি সংরক্ষিত বলে জানান রেঞ্জ কর্মকর্তা মো. মুঞ্জুরুল আলম।

নকলা উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা (ইউএলও) ড. মুহাম্মদ ইসহাক আলী জানান, উদ্ধারকৃত বিপন্নপ্রায় এই প্রাণীটিকে ইংরেজিতে Large Indian Civet বলা হয়; যার বৈজ্ঞানিক নাম Viverra zibetha. বিপন্নপ্রায় এ বন্যপ্রাণীটির বসবাস গভীর জঙ্গলে। তবে বনজঙ্গল কমে যাওয়ায় তাদের খাদ্যের অভাব দেখা দিয়েছে। তাই খাদ্যের সন্ধানে এটি লোকালয়ে এসেছে বলে তিনি মনে করছেন। তিনি আরও জানান, এসব প্রাণী খুবই উপকারী। এমন প্রাণীদের প্রতি কেউ খারাপ আচরণ না করলে, এরা কারও সঙ্গে খারাপ আচরণ করে না।

পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষায় এমন বিপন্নপ্রায় বন্যপ্রাণী সংরক্ষণে সুনজর রাখতে সকলের প্রতি আহবান জানিয়েছেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোস্তাফিজুর রহমান, সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট কাউছার আহাম্মেদ, ইউএলও ড. মুহাম্মদ ইসহাক আলী, রেঞ্জ কর্মকর্তা মো. মুঞ্জুরুল আলম ও বিভিন্ন স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের নেতৃবৃন্দসহ অনেকে।

নিউজটি শেয়ার করুনঃ

এই জাতীয় আরো সংবাদ
©২০২০ সর্বস্তত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | সমকালীন বাংলা
Develop By : BDiTZone.com
themesba-lates1749691102
error: ভাই, খবর কপি না করে, নিজে লিখতে অভ্যাস করুন।