শুক্রবার, ১৯ জুলাই ২০২৪, ০৯:৩৭ অপরাহ্ন
শিরোনামঃ
নকলায় বৈষম্যমূলক কোটা সংস্কার দাবিতে ও শিক্ষার্থীর ওপর বর্বর হামলার প্রতিবাদে মানববন্ধন নকলায় উন্নয়ন সহায়তা কর্মসূচির টিউবওয়েল বিতরণ মুক্তিযুদ্ধের চেতনাবিরোধী শ্লোগানের প্রতিবাদে নকলায় মুক্তিযোদ্ধাদের মানববন্ধন এবার শেরপুরকে ঘিরে তৈরি হচ্ছে ইত্যাদি অনুষ্ঠান : সকল কাজ প্রায় শেষ বিভাগীয় কমিশনার হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণের বর্ষপূর্তি উপলক্ষে সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময় নকলায় “মাদককে না বলুন” কর্মসূচি বাস্তবায়নে শপথ গ্রহণ নকলায় জঙ্গিবাদ ও মাদকাসক্তি প্রতিরোধে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান নকলায় শিশু ও নারী নির্যাতন বিরোধী সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান নকলায় যুবদের হুইসেলব্লোয়ার হিসেবে অন্তর্ভূক্তিকরণ সভা নকলার ইউএনও শুদ্ধাচার পুরস্কার পাওয়ায় যুবফোরাম কর্তৃক সম্মাননা স্মারক প্রদান

শেরপুরের নকলায় প্রতিবন্ধী দিবস পালিত হয়েছে

নকলা (শেরপুর) প্রতিনিধি:
  • প্রকাশের সময় | শুক্রবার, ৩ ডিসেম্বর, ২০২১
  • ২২৩ বার পঠিত

“কোভিডোত্তর বিশ্বের টেকসই উন্নয়ন, প্রতিবন্ধী ব্যক্তির নেতৃত্ব ও অংশ গ্রহণ”-এই প্রতিপাদ্যকে ধারন করে শেরপুরের নকলায় ৩০তম আন্তর্জাতিক ও ২৩তম জাতীয় প্রতিবন্ধী দিবস পালন করা হয়েছে।

এ উপলক্ষে শুক্রবার (৩ ডিসেম্বর) বাংলাদেশ প্রতিবন্ধী বিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি শেরপুর জেলা শাখার তত্ত্বাবধানে নকলা উপজেলাধীন কুর্শাবাদাগৈড় এলাকাস্থ নকলা অটিজম ও বুদ্ধি প্রতিবন্ধী বিদ্যালয়ের উদ্যোগে বর্ণাঢ্য র‌্যালী অনুষ্ঠিত হয়।

“টেকসই নেতৃত্ব বিকাশে জাতীয়বাবে প্রতিবন্ধীদের শিক্ষা নিশ্চিতকরণ” এই শ্লোগানকে সামনে নিয়ে র‌্যালীটি বিদ্যালয় প্রাঙ্গন থেকে শুরু হয়ে নকলা শহরের গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ করে উপজেলা পরিষদ পরিষদ চত্তরে গিয়ে শেষ হয়।

নকলা অটিজম ও বুদ্ধি প্রতিবন্ধী বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. আক্রাম হোসেনের নেতৃত্বে অনুষ্ঠিত র‌্যালীর অগ্রভাগে ছিলেন সহকারী প্রধান শিক্ষক মো. মঞ্জুরুল ইসলাম, সহকারী শিক্ষ খোরশেদ আলম, সানোয়ার হোসেন, সাদ্দাম হোসেন, সুহেল রানা, আরিফুন নাহার, নুসরাত জাহান চায়না, সীমু আক্তার প্রমুখ।

এ র‌্যালীতে নকলা অটিজম ও বুদ্ধি প্রতিবন্ধী বিদ্যালয়ের অন্যান্য শিক্ষক-কর্মচারীসহ ওই বিদ্যালয়ের দেড়শতাধিক প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থী, নকলা প্রবীণ ও প্রতিবন্ধী হিতৈষী সংস্থার নেতৃবৃন্দ, এলাকার গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ ও স্থানীয় সাংবাদিকগন অংশ গ্রহন করেন।

র‌্যালী চলাকালে শিক্ষক-কর্মচারীরা অনলাইনে আবেদনকৃত প্রতিবন্ধী বিদ্যালয় সমূহের এমপিও করাসহ ১১টি দাবী বাস্তবায়ন করার দাবী জানান। তাছাড়া অটিজম ও বুদ্ধি প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থীদের শিক্ষা মানোন্নয়নে “সেবা হউক শিক্ষার উপকরণ” এমনসব দাবী উত্থাপন করা হয়।

নকলা অটিজম ও বুদ্ধি প্রতিবন্ধী বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. আক্রাম হোসেনসহ অন্যান্য শিক্ষক-কর্মচারীরা জানান, দীর্ঘ ১৪টি বছর ধরে (২০০৭ সাল হতে) বিনা বেতনে অটিজম ও বুদ্ধি প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থীদের মাঝে শিক্ষার আলো ছড়িয়ে যাচ্ছেন। বিনা বেতনে শিক্ষার আলো ছড়াতে গিয়ে আজ শিক্ষক-কর্মচারীগন হাফিয়ে ওঠেছেন বলেও অনেকে জানান। অনেকে পরিবার পরিজন নিয়ে হতাশায় দিনাতিপাত করছেন বলে স্থানীয় অনেকে জানান।

প্রতিবন্ধীদের সমাজ ও দেশের উন্নয়নে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখার সুযোগ সৃষ্টিতে সকলের কাছে আহবান জানান নকলা অটিজম ও বুদ্ধি প্রতিবন্ধী বিদ্যালয়ের শিক্ষকবৃন্দ। প্রতিবন্ধীদের সার্বিক সহযোগিতার জন্য সর্বস্তরের জনগণকে এগিয়ে আসার আহ্বান জানান তারা। যদিও নকলা অটিজম ও বুদ্ধি প্রতিবন্ধী বিদ্যালয়ের সকল শিক্ষার্থীকে সমাজ কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের সমাজ সেবা অধিদপ্তরের প্রতিবন্ধী ভাতার আওতায় আনা হয়েছে বলে জানান উপজেলা সমাজ সেবা কর্মকর্তা মো. আলমগীর হোসেন ও নকলা অটিজম ও বুদ্ধি প্রতিবন্ধী বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. আক্রাম হোসেন।

নিউজটি শেয়ার করুনঃ

এই জাতীয় আরো সংবাদ
©২০২০ সর্বস্তত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | সমকালীন বাংলা
Develop By : BDiTZone.com
themesba-lates1749691102
error: ভাই, খবর কপি না করে, নিজে লিখতে অভ্যাস করুন।