সোমবার, ১৭ জুন ২০২৪, ০৩:৩৩ পূর্বাহ্ন
শিরোনামঃ
নকলায় ময়মনসিংহ যুবসমাজ কল্যাণ সংস্থার উদ্যোগে ঈদ উপহার বিতরণ কবিতা :: ‘কোরবানির গরুর হাট’ নকলা প্রেসক্লাব’র উদ্যোগে সাংবাদিকদের ঈদ উপহার প্রদান নকলায় ১টি আগাম জামাতসহ ১০২ ময়দানে ঈদের নামাজ অনুষ্ঠিত হবে নকলায় কৃষকের মাঝে সার বীজ বিতরণ কর্মসূচি উদ্বোধন করলেন সংসদ উপনেতা মতিয়া চৌধুরী নকলার ১৭৪টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা পেলো সংসদ উপনেতা মতিয়া চৌধুরী’র ঈদ উপহার নকলায় গাছের সাথে শত্রুতা! সুষ্ঠু বিচার পাওয়া নিয়ে সংশয়ে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবার সংসদ উপনেতা মতিয়া চৌধুরী সংক্ষিপ্ত সফরে নকলায় পৌঁছেছেন নকলা উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে বিজয়ী ৩ প্রার্থীর শপথ গ্রহণ নকলায় ঈদ উপলক্ষে ২১৬৯ পরিবারের মাঝে ভিডব্লিউবি কর্মসূচির চাল বিতরণ

নকলায় মামলা তুলে নিতে ও সংবাদ সম্মেলন করায় বাড়িঘরে হামলা, হাসপাতালে ভর্তি ৫মাসের অন্তসত্বা

নকলা (শেরপুর) প্রতিনিধি:
  • প্রকাশের সময় | বৃহস্পতিবার, ১৬ সেপ্টেম্বর, ২০২১
  • ৩২০ বার পঠিত

শেরপুরের নকলায় হামিদা বেগম (৬০) নামে এক বৃদ্ধা মাকে নির্মম ভাবে মারধর করায় শেরপুর আদালতে দায়ের করা মামলা তুলে নিতে ও সুষ্ঠ বিচার কামনায় সংবাদ সম্মেলন করার অপরাধে বাড়িঘড়ে হামলা, লুটপাট ও ৫মাসের অন্তসত্বা বোনকে পিটিয়ে গুরুতর আহত করার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

জানা গেছে, নকলা পৌরসভার ৯নং ওয়ার্ডের কলাপাড়া এলাকায় এক বৃদ্ধা অসহায় মাকে ভিটাবাড়ি ছাড়াতে মাঝেমধ্যেই মারধর করেন তার সৎ ছেলে মাদ্রাসার শিক্ষক হারুন অর রশিদ, তার স্ত্রী রহিমা বেগম ও ছেলে মামুনুর রশিদ ওরফে রাসেল।

বৃদ্ধা মাকে নির্মম ভাবে মারধর করাসহ মায়ের একমাত্র সম্বল সামান্য বসতভিটার জমি অন্যায় ভাবে জবর দখলের উদ্দেশ্যে বার বার হামলা থেকে বাঁচতে ছেলেসহ সহযোগীদের বিরুদ্ধে শেরপুর সিআর আমলি আদালতে একটি মামলা দায়ের করেন ওই বৃদ্ধা মা হামিদা বেগম। মামলা নং সি.আর ১৮৫/২০২১। তাছাড়া সুষ্ঠ বিচার কামনায় মঙ্গলবার (১৪ সেপ্টেম্বর) রাতে সংবাদ সম্মেলন করেন ভূক্তভোগী ওই মা ও তার পরিবারের অন্যান্যরা।

আদালতে করা মামলা তুলে নিতে ও সংবাদ সম্মেলন করায় বৃহস্পতিবার বিকেলে আবারো বৃদ্ধ মা ও তার সন্তানদের ওপরে হামলা ও বাড়িঘড়ে ভাংচুর-লুটপাট করে হারুন রশিদ গংরা। এসময় বৃদ্ধা মাকে অন্যের ঘরে লুকিয়ে রেখে পরিবারের সবাই দৌঁড়ে পালিয়ে গেলেও, অসুস্থ মাকে দেখতে আসা ৫মাসের অন্তসত্বা মেয়ে খাদিজা বেগম (৩০) পালাতে পারেনি। হারুন রশিদ গংরা এ অন্তসত্বা নারীর ওপর চড়াও হয়ে পিটিয়ে গুরুতর আহত করে। পরে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে নকলা হাসপাতালে ভর্তি করেন।

এবিষয়ে নকলা থানায় একটি মামলার প্রক্রিয়া চলছে বলে জানান বৃদ্ধা ওই মায়ের ছোট ছেলে হিরা মানিক। মানিক মিয়া জানান, কয়েকদিন আগে আমার মা বৃদ্ধা হামিদা বেগমকে হারুন গংরা মারপিট করার সময় ৯৯৯ নম্বরে ফোন করলে পুলিশ ঘটনা স্থলে গিয়ে তাকে আহত অবস্থায় উদ্ধার করে নকলা হাসপাতালে ভর্তি করেন। আজ বৃহস্পতিবার আবার আমাদের বাড়ি ঘরসহ মায়ের ওপর হামলা চালালে ৯৯৯ নম্বরে ফোন করলে তাৎক্ষণিক নকলা থানার পুলিশ এসে পরিস্থিতি সামাল করেন।

হামিদা বেগমের ছোট ছেলে হিরা মানিক বলেন, যেকোন সময় আমার বৃদ্ধা মাসহ আমাদের উপর হারুন অর রশিদ গংরা হামলা করতে পারে। তারা সম্পূর্ণ নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন বলে সাংবাদিকদের জানান।

নিউজটি শেয়ার করুনঃ

এই জাতীয় আরো সংবাদ
©২০২০ সর্বস্তত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | সমকালীন বাংলা
Develop By : BDiTZone.com
themesba-lates1749691102
error: ভাই, খবর কপি না করে, নিজে লিখতে অভ্যাস করুন।