শনিবার, ২০ এপ্রিল ২০২৪, ০৮:১২ অপরাহ্ন
শিরোনামঃ
নকলায় এক নারীর লাঠির আঘাতে পুরুষ খুন! আটক ২ নকলায় প্রাণিসম্পদ সেবা সপ্তাহ উদ্বোধন ও প্রদর্শনী মেলা নকলায় বঙ্গবন্ধু শিক্ষা ও গবেষণা পরিষদ’র উদ্যোগে ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবস উদযাপন নকলায় বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবস উদযাপন নকলায় বিভিন্ন কর্মসূচির মধ্যদিয়ে ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবস উদযাপন নকলায় অগ্নিকান্ডে ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারের মাঝে ঢেউটিন ও সহায়তার চেক বিতরণ নকলা ইউএনও’র বিরুদ্ধে তথ্য কমিশন কর্তৃক গৃহীত অযৌক্তিক সুপারিশের বিরুদ্ধে গণস্বাক্ষরসহ প্রতিবাদ নকলা পৌরসভার কলাপাড়া গ্রামের সার্বজনীন ইফতার আয়োজনকে অনুকরণ করার আহবান নকলার ৫৩১০ জন পেলেন সংসদ উপনেতা মতিয়া চৌধুরী’র ঈদ উপহার নকলায় কৃষকের মাঝে বিনামূল্যে সার বীজ বিতরণ উদ্বোধন

নকলায় নিরাপদ সামাজিক দূরত্ব বজায়ে কাঁচাবাজার স্থানান্তর

এম.এম হোসাইন, নিজস্ব প্রতিনিধি:
  • প্রকাশের সময় | শনিবার, ২৪ জুলাই, ২০২১
  • ৩২৫ বার পঠিত

করোনা ভাইরাস (কোভিড-১৯) সংক্রমণ ঠেকাতে দেশের অধিকাংশ অফিস-আদালত, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানসহ বিভিন্ন কারখানা ও গণপরিবহন বন্ধ রাখা হয়েছে। কিন্তু ঔষধের দোকান ও খাবার হোটেলসহ নিত্যপণ্য বেচা-কেনার জন্য কাঁচাবাজার গুলো খোলা রাখা হয়েছে। তবে গত কয়েক দিনে করোনায় আক্রান্ত রোগী বাড়তে থাকায়, এর কারন হিসেবে কাঁচাবাজারকে চিহিৃত করা হয়েছে।

করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে সরকারের পক্ষ থেকে সামাজিক ও শারীরিক দূরত্ব বজায় রাখার কথা বলা হলেও, কাঁচাবাজার গুলোতে ক্রেতা-বিক্রেতার উপচে পড়া ভিড় হওয়ায়, নিরাপদ সামাজিক দূরত্ব বজায় নিশ্চিত করতে প্রশাসনকে বেশ হিমশিম খেতে হচ্ছে। একই স্থানে অনেক লোকের সমাগমে করোনা ভাইরাস সংক্রমণের ঝুঁকি ও আক্রান্তের সংখ্যা দিন দিন বাড়ছে। তাই করোনা ভাইরাস সংক্রমণ প্রতিরোধে শেরপুর জেলার নকলা উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে নিরাপদ সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে খোলা স্থানে সবজির দোকান স্থানান্তর করার উদ্যোগ নেওয়া হয়। পরে নকলা বাজারের সবজির দোকান গুলো খোলা জায়গায় স্থানান্তর করার প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করে উপজেলা প্রশাসন এবং ২৪ জুলাই শনিবার সকালে সবজির দোকান গুলো নকলা সরকারি পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে স্থানান্তর করা হয়।

এর আগে উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে নকলা শহরের প্রায় প্রতিটি দোকানের সামনে নির্দিষ্ট দূরত্বে রং দিয়ে ‘নিরাপত্তা বৃত্ত’ তৈরি করে দেওয়া হয়। কিন্তু কিছু দোকানে তা মানা হলেও, জনগনের অসচেতনতার জন্য কাঁচাবাজারে নিরাপত্তা বৃত্তের গুরুত্ব একবারেই দেওয়া হয়না। দোকানের সামনে গোল চিহ্ন এঁকে দিলেও লোকজন তা মানছেন না। ফলে প্রতিনিয়ত করোনা ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ছে। তাই উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে নকলা বাজারের সবজির দোকান গুলো খোলা স্থানে সরিয়ে নেওয়া হয়। এতে করোনা ভাইরাস সংক্রমণের শঙ্কা অনেকটা কমবে বলে অনেকে মনে করছেন।

সরেজমিনে দেখা যায়, সবজির দোকানে শারীরিক ও নিরাপদ সামাজিক দূরত্ব বজায়ে প্রশাসন, পুলিশ বিভাগ ও বিজিবি সদস্যবৃন্দ বাজার কমিটিকে সার্বিক সহায়তা করছেন; চালাচ্ছেন প্রচার প্রচারনা। তবে কাঁচা বাজারে শতভাগ নিরাপদ সামাজিক দূরত্ব রক্ষা করতে ক্রেতা-বিক্রেতা, জনসাধারণ ও সংশ্লিষ্টদের আরও সচেতন হতে হবে বলে মনে করছেন সুশীলজন। এর জন্য উপজেলা প্রশাসন, পুলিশ বিভাগ, বিজিবি সদস্য ও স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন হ্যান্ডমাইকে ক্রেতা-বিক্রেতাদের সামাজিক ও শারীরিক দূরত্ব বজায় রাখতে প্রতিনিয়ত অনুরোধ জানিয়ে আসছেন। লকডাউন অমান্য করায় প্রতিদিন ভ্রাম্যমান আদালতের মাধ্যমে করা হচ্ছে অর্থদন্ড।

খোলা জায়গায় স্থানান্তরিত হওয়া সবজি ব্যবসায়ী সাখাওয়াত হোসেন ফারুক, জুলহাস মিয়া ও মুরশিদুল ইসলাম জানান, খোলা জায়গায় সবজির বাজার বসানোতে একদিকে রোদের কারণে, অন্যদিকে মাছ বাজারসহ অন্যান্য দোকান গুলো আগের স্থানে থাকায় ক্রেতারা নতুন স্থানে এসে সবজি কিনতে অনীহা প্রকাশ করেন। তারা বলেন, নকলা বাজারে ২৫ থেকে ৩০ জন সবজি ব্যবসায়ী আছি। কিন্তু আমরা মাত্র কয়েকজন প্রশাসনের নির্দেশে নতুন স্থানে দোকান স্থানন্তর করেছি। বাকিরা আগের জায়গাতেই রয়ে গেছেন। এতে নিয়মিত কিছু ক্রেতা তাদের হাত ছাড়া হতে পারেন বলে তারা মনে করছেন।

নতুন স্থানে তথা নকলা সরকারি পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে সবজি কিনতে আসা জেলা পরিষদের সদস্য ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ছামিউল হক মুক্তা, পাঠাকাটা উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক মীর মোতালেব হোসেন সিপন, সবজি ক্রেতা মমিনুল ইসলাম জুয়েলসহ অনেকে জানান, চলমান করোনা ভাইরাসের প্রভাবে সৃষ্ট সংকটের সময়ে ক্রেতা-বিক্রেতাদের আত্মসচেতন হয়েই ধৈর্য্যরে সহিত নিরাপদ সামাজিক ও শারীরিক দূরত্ব বজায় রেখে কষ্ট করে হলেও বেচা-কেনা করতে হবে। ক্রেতা-বিক্রেতাদের নিরাপদ সামাজিক ও শারীরিক দূরত্ব বজায় নিশ্চিতের ক্ষেত্রে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর পাশাপাশি স্বেচ্ছাসেবক নিয়োগ করা যেতে পারে বলে তার মনে করেন। যারা নিজেদের ব্যক্তিগত নিরাপত্তা নিশ্চিত করে ক্রেতা-বিক্রেতাদের সামাজিক ও শারীরিক দূরত্ব বজায় রাখতে সচেতন করবেন।

এবিষয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার জাহিদুর রহমান জানান, পরবর্তী নির্দেশনা না দেওয়া পর্যন্ত সবাইকে নতুন নির্ধারিত স্থান তথা নকলা সরকারি পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে সবজি বেচা-কেনা করার নির্দেশক্রমে অনুরোধ জানানো হয়েছে। আদেশ অমান্যকারীর বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে তিনি জানান। নকলা বাজারের যেসকল সবজির দোকান গুলো এখনো নতুন নির্ধারিত স্থানে সড়ানো হয়নি, সেগুলো দ্রুত স্থানান্তরের প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে বলে জানান ইউএনও জাহিদুর রহমান।

নিউজটি শেয়ার করুনঃ

এই জাতীয় আরো সংবাদ
©২০২০ সর্বস্তত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | সমকালীন বাংলা
Develop By : BDiTZone.com
themesba-lates1749691102
error: ভাই, খবর কপি না করে, নিজে লিখতে অভ্যাস করুন।